চাঁপাইনবাবগঞ্জ | মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ info@mohanonda24.com +৮৮ ০১৬৮২ ৫৬ ১০ ২৮, +৮৮ ০১৬১১ ০২ ৯৯ ৩৩
অস্ট্রেলিয়ায় সংগীত পরিবেশন করেছেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় শিল্পী তাহসান খান ও তার ব্যান্ড। শনিবার (১ জুন) সিডনির নিউ সাউথ ওয়েলস ইউনিভার্সিটির সায়েন্স থিয়েটারে অনুষ্ঠিত হয় ‘তাহসান খান লাইভ ইন সিডনি’ শীর্ষক মনোজ্ঞ এ সংগীত সন্ধ্যা।

তাহসানের গানে উন্মাতাল সিডনি

নিউজ ডেস্ক | প্রকাশিত: ৩ জুন ২০২৪ ০০:০৭

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ৩ জুন ২০২৪ ০০:০৭

ছবি : সংগৃহীত

নিউজ ডেস্কঃ রেমিয়ানস অস্ট্রেলিয়ার আয়োজনে সিডনির সংগীতপ্রেমী মানুষের ঢল নামে সায়েন্স থিয়েটারে। মোম মজিদের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানটি ছিল এক কথায় অসাধারণ। এই আয়োজনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক বাংলাদেশের ফ্যাশন ডিজাইনের অন্যতম খ্যাতনামা পথিকৃৎ aarong.com।

দক্ষিণ গোলার্ধে আজ ছিল শীতকালের প্রথমদিন। আবহাওয়া কিছুটা বৈরী। অনুষ্ঠানে অবিরাম বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে তরুণ-তরুণীরা উপস্থিত হয়েছিল। তাহসানের গানে উন্মত্ত হয়ে উঠেছিল সংগীতপ্রেমী মানুষেরা। সিডনির দর্শকরা প্রত্যক্ষ সাক্ষী হয়ে রইল জনপ্রিয়তম তারকার অনন্য পরিবেশনা। তার কণ্ঠের জাদুতে বিমোহিত দর্শক-শ্রোতামণ্ডলী স্মৃতিকাতর হয়ে উঠেছিলেন বারবার।

প্রতিটি গানের সঙ্গে তারা গলা মিলিয়ে গান গেয়েছেন, নেচে উঠেছেন সুরের তালে। দূর-দূরান্তের শহরগুলো থেকেও ফ্যানরা এসে মুগ্ধ হয়ে ফিরে গেছেন নিজ আলয়ে। তারা গুনগুন সুরে তাহসানের গান গাইতে গাইতে ঘরে ফেরার পথে মনের অলিন্দে সঞ্চিত করেছেন মার্জিত ও সফল এক আয়োজনের অভিজ্ঞতাকে।

স্মরণীয় সন্ধ্যার শুরুতেই সংগীত পরিবেশন করেন স্থানীয় ব্যান্ড ‘রকাহন’। যা ছিল দর্শকদের জন্য বাড়তি পাওনা। এমন উপলক্ষ্যকে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশের গৌরব ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য জামদানি শাড়িকে বিশ্বের দরবারে উপস্থাপনের তরে তাহসানের গানের আগে ফ্যাশন শোর আয়োজন করা হয়। বাংলাদেশের অহংকার জামদানি শাড়িই ছিল ফ্যাশন শো এর মূল থিম। ছোট্ট অথচ পরিশীলিত এই অংশটিও দর্শকদের প্রশংসা কুড়ায়।
‘তাহসান খান লাইভ ইন সিডনি’ অনুষ্ঠানের আয়োজকরা দর্শক-শ্রোতার উচ্ছ্বাসকে আশীর্বাদরূপে গ্রহণ করেছেন। আরও কয়েক শতাধিক আগ্রহী দর্শকদের স্থানসংকুলান (টিকিট সরবরাহ) করতে না পারার জন্য তারা গভীর দুঃখ প্রকাশ করেছেন। আয়োজকদের পক্ষে রেমিয়ানস অস্ট্রেলিয়ার প্রেসিডেন্ট সালেহ আহমেদ জামী উপস্থিত সব দর্শক-শ্রোতা, যন্ত্রশিল্পী, কলাকুশলী, আয়োজক-পৃষ্ঠপোষক, ব্যবস্থাপক, তরুণ ভলান্টিয়ার দল এবং নেপথ্যের কারিগরদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: