চাঁপাইনবাবগঞ্জ | বৃহঃস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ info@mohanonda24.com +৮৮ ০১৬৮২ ৫৬ ১০ ২৮, +৮৮ ০১৬১১ ০২ ৯৯ ৩৩
আজ দুপুর ২টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ) চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখা।

ডা: কাজেম আলী হত্যার প্রতিবাদে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিএমএ এর মানববন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশিত: ৩১ অক্টোবর ২০২৩ ২০:৫৯

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশিত: ৩১ অক্টোবর ২০২৩ ২০:৫৯

বিএমএ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখার উদ্দ্যোগে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক: চাঁপাইনবাবগঞ্জের কৃতি সন্তান বিশিষ্ট তরুণ চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ গোলাম কাজেম আলী আহমেদের নির্মম হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদ এবং হত্যাকান্ডে জড়িতদের দ্রুত গ্ৰেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ) চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখা।

আজ দুপুর ২টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ) চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখা।

এসময় বিএমএ সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে বাংলাদেশ প্রাইভেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখা সহ মাক্স হসপিটাল এবং পদ্মা ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও আলাদা আলাদা ব্যানারে এই মানববন্ধনে যোগদান করে।

মানববন্ধনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ বিএমএ এর সাধারণ সম্পাদক ডাঃ মোঃ গোলাম রব্বানী বলেন, ডাঃ গোলাম কাজেম আলী ছিলেন একজন অভিজ্ঞ চিকিৎসক। এরকম একজন ডাক্তার উত্তরবঙ্গের মানুষ যে আর কত বছর পাবে না তা বলা যাবে না। এইরকম একজন ডাক্তারকে যার নৃশংস ভাবে হত্যা করেছে তাদের অতি দ্রুত আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জ বিএমএ এর সভাপতি ডাঃ মোঃ দুরুল হোদা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ডাঃ গোলাম কাজেম আলী একজন অভিজ্ঞ ডাক্তার হওয়ার পাশাপাশি একজন ভালো, নম্র-ভদ্র মানুষ ছিলেন। অতি দ্রুত যদি নির্মম হত্যাকাণ্ডের বিচার করা না হয় তাহলে প্রয়োজনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকেই পুরো দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা অচল করে দেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, গত রবিবার (২৯ অক্টোবর ) মধ্য রাতে নিয়মিত চেম্বার শেষ করে বাড়ি ফেরার পথে সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার হয়ে মৃত্যুবরণ করেন রাজশাহী অঞ্চলের সুপরিচিত চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ মোঃ গোলাম কাজেম আলী আহমেদ।

উল্লেখ্য, তিনি রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের এমবিবিএস ৪২তম ব্যাচের ছাত্র ছিলেন। তিনি রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বহির্বিভাগে রোগী দেখতেন। এ ছাড়াও নগরীর ইসলামী ব্যাংক হাসপাতাল এবং পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নিয়মিত রোগী দেখতেন। ডা. কাজেম হত্যায় নগরীর রাজপাড়া থানায় সোমবার (৩০ অক্টোবর) দুপুরে তার স্ত্রী ডা. ফারহানা ইয়াসমিন মামলা দায়ের করেছেন। মামলার এজাহারে আসামি অজ্ঞাত উল্লেখ করা হয়েছে।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: