চাঁপাইনবাবগঞ্জ | মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ info@mohanonda24.com +৮৮ ০১৬৮২ ৫৬ ১০ ২৮, +৮৮ ০১৬১১ ০২ ৯৯ ৩৩

ইয়াওমুল আরাফার রোজা গুনাহ থেকে পরিত্রাণের দিবস 

এম এ করিম চাঁপাইনবাবগঞ্জ  | প্রকাশিত: ১৬ জুন ২০২৪ ১৮:৪৬

এম এ করিম চাঁপাইনবাবগঞ্জ 
প্রকাশিত: ১৬ জুন ২০২৪ ১৮:৪৬

সংগৃহীত

আরাফা শব্দের অর্থ পরিচিতি,আল্লাহ সুবহানু ওয়া তা'আলা হযরত আদম আলাইহিসালাম এবং হাওয়া আলাইহিসালাম কে পৃথিবীর দু'ই প্রান্তে অবতরণ করেছিলেন,পরিশেষে মিলিত হয় আরাফার ময়দানে,এতে করে নাম দেওয়া হল আরাফার দিন। 

আরাফার দিন হল ইয়াওমুল আরাফা, যেদিন হাজীরা হজের প্রধান ফরজ অকুফে আরাফার প্রান্তে অবস্থান করে থাকে।সেদিনের ফজিলত ও তাৎপর্য অধিক মর্যাদা। 

রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এরশাদ করে বলেন,ইয়াওমে আরাফার রোজার বিষয়ে আমি আল্লাহ সুবহানুতায়ালার কাছে আশাবাদী,তিনি এর দ্বারা আগের এক বছরের ও পরের এক বছরের গুনাহ সমূহ কে মাফ করবেন (সহীহ মুসলিম ১১৬২) 

বাংলাদেশে কার্যত চান্দ্র তারিখে দুইটি ধারা বহাল রয়েছে প্রথমটি স্থানীয়ভাবে চাঁদ দেখে,পরবর্তীটি সৌদি আরবের তারিখ অনুসরণ করেন।হজ পৃথিবীর শুধুমাত্র এক জায়গায় মক্কা শরীফেই অনুষ্ঠিত হয়।আর তাই সারা পৃথিবীতেই হজের দিনই আরাফার রোজা প্রতিপালিত হবে।

যদি কোন মুসলিম উম্মাহ একটিমাত্র আরাফাত রোজা রাখতে চাই এবং ইখলাস ও তাকওয়ার সাথে আমল করেন তবে সে পূর্ণ সওয়াব প্রাপ্ত হবেন।ইসলামে আরাফার এই দিনকে মুসলমানদের পক্ষ থেকে রহমত প্রাপ্ত এবং গুনাহ সমহ্ থেকে পরিত্রাণের দিন হিসেবে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। 

আল্লাহ সুবহানুতায়ালার কাছে সকল ধর্মপ্রাণ মুসলমান প্রার্থনা করে চাই, আল্লাহ যেন সকলকে এমন অধিক সওয়াব আমল করার তৌফিক দান করেন,যাতে করে আল্লাহ সকল মুসলিম উম্মাহর প্রতি সন্তুষ্ট হয়ে যান।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: