চাঁপাইনবাবগঞ্জ | মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ info@mohanonda24.com +৮৮ ০১৬৮২ ৫৬ ১০ ২৮, +৮৮ ০১৬১১ ০২ ৯৯ ৩৩
বসন্ত জড়িয়ে বিশ্ব ভালোবাসা দিবস

বসন্ত জড়িয়ে বিশ্ব ভালোবাসা দিবস

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশিত: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ১০:১০

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশিত: ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ১০:১০

ভালোবাসা দিবস

গাছে গাছে পলাশ ও আমের মুকুলের আগমনে প্রকৃতি বলছে, বসন্ত এসে গেছে। বাঙালি শিল্প সাহিত্য সংস্কৃতিতে জুড়ে আছে বসন্ত প্রেমের বন্দনা। ভালোবাসার ঋতু বলেও বসন্ত মিশে আছে বাঙালির প্রেমে আবেগে। প্রিয় মানুষের খোঁপায় ফুল গুঁজে দিয়ে যেন বসন্তকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত তরুণ-তরুণীরা। এদিকে রাজধানী জুড়ে বাহারি ফুলের পসরা সাজিয়ে বসেছেন বিক্রেতারা। দুই উৎসব ঘিরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও নিয়েছে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা। পুলিশের পাশাপাশি রাস্তার মোড়ে থাকবে র‌্যাবের নিরাপত্তা চৌকি। বাংলা বর্ষপঞ্জিতে সংশোধনের কারণে বাংলা ফাল্গুন মাসের প্রথম দিন ও ভ্যালেন্টাইন’স ডে বা ভালোবাসা দিবস একইদিনে পড়েছে। এতদিন ফেব্রুয়ারি মাসের ১৩ তারিখে ফাল্গুন মাসের প্রথম দিন পালিত হতো, আর ১৪ই ফেব্রুয়ারি বিশ্বজুড়ে পালন করা হয় ভ্যালেন্টাইন’স ডে বা ভালোবাসা দিবস। তবে ২০২০ সাল থেকে দুটি দিবসই বাংলাদেশে একই দিনে পালিত হচ্ছে। উৎসব ঘিরে নিজেকে সাজাতে তাই ফুল ও পোশাকের দোকানে ভিড় করছে উৎসবপ্রিয় বাঙালি। ক্রেতারা বলছেন, অন্য বছরের চেয়ে এবার দাম কিছুটা বেশি। আর বিক্রেতারা বলছেন, দুই উৎসব একসঙ্গে হওয়ায় বিক্রিতে কিছুটা ভাটা পড়েছে। ফুলের রঙে পোশাকেও ফুটেছে ভালোবাসার সব রঙ। লাল হলুদই চোখে পড়েছে বেশি। সব শ্রেণিপেশা, বয়স, ধর্ম-বর্ণ যেন মিলতে প্রস্তুত একই উৎসবের মোহনায়। বসন্ত উৎসবটি বাঙালির সব বয়সির হলেও এতে তারুণ্যের প্রভাবই থাকে বেশি। এ দিনটিতে তরুণ-তরুণীরা বাসন্তী রঙের পোশাকে নিজেদের সজ্জিত করে। ফুল বিনিময় ও ব্যবহারের ধুম পড়ে যায়। তবে এ সময়ে এই ধরনের আয়োজন গ্রামাঞ্চলের পরিবর্তে শহরাঞ্চলেই বেশি দেখা যায়। ১৪ ফেব্রুয়ারি কেন ভালোবাসা দিবস? শোনা যায় প্রাচীন রোমে ১৪ ফেব্রুয়ারি ছিল রোমান দেব-দেবীর রানী জুনোর সম্মানে ছুটির দিন। সে সময়ে জুনোকে মনে করা হতো নারী ও প্রেমের দেবী। তাই ভালোবাসার দিবসটি ১৪ ফেব্রুয়ারি নির্ধারণ করা হয়। এ ব্যাপারে ভিন্নমতও আছে। ২০০ খ্রিষ্টাব্দে রোমান সম্রাট ক্লডিয়াস সেদেশে যুবকদের বিয়ে করা নিষিদ্ধ করেন। সম্রাটের ভাবনা ছিল, যুবকরা বিয়ে করলে যুদ্ধে যাবে কে? কিন্তু এই নিয়মের বিরোধিতা করেন এক সাহসী রোমান যুবক, নাম তার ভ্যালেন্টাইন। সে সময়ে সম্রাটের ঘোষণার বিরোধিতা মানেই মৃত্যুদণ্ড। কোনো এক ১৪ ফেব্রুয়ারিতে শাস্তিস্বরূপ ভ্যালেন্টাইনের মাথা কেটে নেওয়া হয়। মনে করা হয়, এই ভ্যালেন্টাইনের নামেই আজকের ভালোবাসা দিবস।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: