ঢাকা শনিবার, ২২শে জানুয়ারী ২০২২, ১০ই মাঘ ১৪২৮


যুক্তরাষ্ট্রসহ ২৩ দেশে ছড়িয়েছে ওমিক্রন


প্রকাশিত:
২ ডিসেম্বর ২০২১ ১২:২৫

আপডেট:
২২ জানুয়ারী ২০২২ ০৮:১১

যুক্তরাষ্ট্রে শনাক্ত হলো করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন। ক্যালিফোর্নিয়ার ওই বাসিন্দা সম্প্রতি সাউথ আফ্রিকার থেকে ফিরেছিলেন। সৌদি আরব, ব্রাজিল ও নরওয়েতে ৫ জনের দেহে করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে। সাউথ আফ্রিকা থেকে শুরু হয়ে এ পর্যন্ত ছড়িয়েছে ২৩টি দেশে। সংক্রমণ রোধে এরই মধ্যে আফ্রিকার কয়েকটি দেশের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ৭০টির বেশি দেশ-অঞ্চল।

২৪ নভেম্বর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে করোনার নতুন ধরন শনাক্তের তথ্য দেয় সাউথ আফ্রিকা। সপ্তাহ খানেকের মধ্যে এই ধরন মিলেছে বিশ্বের ২৩ দেশে। সবচেয়ে বেশি ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে সাউথ আফ্রিকায় ৭৭, যুক্তরাজ্যে ২২, বতসোয়ানায় ১৯, নেদারল্যান্ডসে ১৬, পর্তুগালে ১৩ জনসহ দুই শতাধিক।

সাউথ আফ্রিকার বিশেষজ্ঞদের দাবি, ওমিক্রনে আক্রান্তরা বেশিরভাগ তরুণ, তবে উপসর্গ ছিল খুব কম। জানা গেছে, হাসপাতালে ভর্তি হওয়াদের মধ্যে বেশিরভাগই নেয়নি করোনার টিকা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, অন্য ধরন থেকে ওমিক্রনে নতুন কোন উপসর্গ দেখা দেয়নি। স্বস্তির বিষয়, বুধবার পর্যন্ত ওমিক্রনে আক্রান্ত কারো মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি।

এর মধ্যেই সাউথ আফ্রিকার নানা দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে বিশ্বের বহু দেশ। যুক্তরাজ্য-ইউরোপের এই পদক্ষেপকে অযথা অভিহিত করেন, প্রথম ওমিক্রন শনাক্তকারী চিকিৎসক অ্যাঞ্জেলিকিউ কোয়েটজি।

এদিকে, ওমিক্রন বিশ্বজুড়ে উচ্চ স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি করতে পারে, এমন হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। তবে ভারতের ভাইরোলজিস্ট শহীদ জামিল বলেছেন, এখনই আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। সতর্ক থেকে, মাস্ক পরার ওপর জোর দেন তিনি।

ওমিক্রন নিয়ে খুব বেশি তথ্য-উপাত্ত নেই আমাদের কাছে। তবে আমাদের সতর্ক হতে হবে। আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। ডেল্টা ধরনের কারণে ভারতে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে আমাদের ধারণার চেয়েও বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। ন্যাশনাল সেরো সার্ভের হিসাবে, এই সময়ে দেশটির ৬৭ ভাগ মানুষের দেহে করোনার অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে।

ওমিক্রন নিয়ে আতঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফাউচি।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: