ঢাকা শনিবার, ১৮ই সেপ্টেম্বর ২০২১, ৪ঠা আশ্বিন ১৪২৮


বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী দক্ষিণ কোরিয়া


প্রকাশিত:
৩১ আগস্ট ২০২১ ১৬:০৬

আপডেট:
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৪:০১

নিউজ ডেস্কঃ দক্ষিণ কোরিয়ার খ্যাতনামা জায়ান্ট কোম্পানিগুলো বাংলাদেশে মোটরগাড়ি, জ্বালানি এবং অবকাঠামো নির্মাণ শিল্পে বিনিয়োগে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। বিশ্ব বিখ্যাত গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুন্দাই বাংলাদেশে গাড়ি নির্মাণ কারখানা স্থাপনের জন্য গত জানুয়ারিতে চুক্তি সই করেছে।
 
এবার আরও দুটি কোরিয়ান কোম্পানি বাংলাদেশে বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করে সরকারের সংশ্লিষ্ট দলগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। তার মধ্যে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন কোরিয়ান প্রতিষ্ঠান হানহোয়া ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড কনস্ট্রাকশন করপোরেশন বাংলাদেশের অবকাঠামো উন্নয়নে আন্তর্জাতিক কন্ট্রাকটর হিসেবে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে।
 
এছাড়া জিওনজি সিইএস নামে কোরিয়ান আরেক বিখ্যাত জায়ান্ট কোম্পানি বাংলাদেশে জ্বালানি খাতে বিনিয়োগের আগ্রহ দেখিয়েছে।
 
এ বিষয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে চিঠি পাঠিয়ে বিষয়টি অবহিত করেন সিউলের বাংলাদেশ দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর ড. মো. মিজানুর রহমান।
 
দক্ষিণ কোরিয়ার এই শিল্পপ্রতিষ্ঠানগুলো বাংলাদেশে বড় বিনিয়োগে আগ্রহ প্রকাশ করে ইতোমধ্যে সিউলে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। এছাড়াও বাংলাদেশ সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোর সঙ্গে তারা আলোচনা শুরু করেছে।
 
জানা গেছে, বাংলাদেশে অবস্থিত কোরিয়ান দূতাবাসের তথ্যমতে, প্রায় ২০০ কোম্পানি এ দেশে বিনিয়োগ করেছে। বাংলাদেশে কোরিয়ান কোম্পানির বিনিয়োগ করা কোরিয়ান ইপিজেডও রয়েছে। তৈরি পোশাকের পাশাপাশি বর্তমানে অবকাঠামো উন্নয়ন, ইলেকট্রনিক্স এবং অটোমোবাইল খাতে কোরিয়া বিনিয়োগ করছে।
 
এছাড়াও বঙ্গবন্ধু মেডিকেল ইউনিভার্সিটি হসপিটাল নির্মাণে যৌথ উদ্যোগে পরিকল্পনা করা হচ্ছে। বাংলাদেশের মেগা প্রকল্পেও বিনিয়োগ করতে আগ্রহী কোরিয়ার খ্যাতনামা কোম্পানিগুলো।
 
দক্ষিণ কোরিয়ার শিল্প উদ্যোক্তারা জানান, তারা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় তাদের বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন। বৈঠকে রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম গাজীপুরে কোরিয়ার হুন্দাই কোম্পানির গাড়ি নির্মাণ কারখানা স্থাপনের বিষয়টি তুলে ধরে চেম্বারের মোটর পার্টস ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান জানান।
 
এ সময় চেম্বারের প্রেসিডেন্ট কোরিয়ান শিল্প উদ্যোক্তা কিম হিয়ং এ বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেন এবং তার সংগঠনের মোটর পার্টস নির্মাণকারী সদস্যদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের বিষয়টি তুলে ধরবেন বলে আশা প্রকাশ করেন।


আপনার মূল্যবান মতামত দিন: