ঢাকা সোমবার, ১৪ই জুন ২০২১, ১লা আষাঢ় ১৪২৮


প্রাণ ফিরে পেয়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের মহানন্দা নদীর শাখা!


প্রকাশিত:
৮ মে ২০২১ ১৪:৫৯

আপডেট:
১৪ জুন ২০২১ ১৫:০৫

এম এ করিম, নিউজ ডেস্কঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী নদী মহানন্দা যার নামনুসারে বিভিন্ন রাস্তা ঘাট গ্রাম ব্রিজ সহ হোটেল কোম্পানির ছন্দ মালাই রাখা হয় নাম মহানন্দা।আর এ মহানন্দা নদীর শাখায় পানিশূন্যে প্রাণ ফিরে পেয়েছে পানির দেখা।

গেল বাংলা ১৪২৭ চৈত্র মাসের ১২ তারিখে মহানন্দা নদীর শাখায় পানিশূন্য দেখা দেয়,তবে মহানন্দা নদী বাংলা বৈশাখ মাসের গত ২২ তারিখে টিপ টিপ করে পানির দেখা পেয়ে যেন প্রাণ ফিরে পেয়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী নদী মহানন্দা।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের বোরো মৌসুমে আবাদি জমিতে সেচ ব্যবস্থার অনেকটাই এ মহানন্দা নদীর পানি থেকে চাষবাস। এদিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ডুবা বিল খাল শুকিয়ে চাষযোগ্য করে তুলে ধান ফসলী জমি এতে করে ভারত-বাংলাদেশের ২১৯ নম্বর সীমানা পিলার ঘেঁষে তেলীবাড়ী ও রামচন্দ্রপুর মৌজায় ধান চাষে কতগুলো বিল লাঙ্গল ভাঙ্গা,সদরঘাট,অাহুড়া, তালতলা বিলসহ কালা বকরির ঘোণ বরতলা সহ সিংহাবাজ পাথরের অনেক অংশই আবাদি জমিতে চাষ সেচ ব্যবস্থায় নির্ভর করে চাঁপাইনবাবগঞ্জের মহানন্দা নদীর পানি।

তবে এমন ঐতিহ্যবাহী মহানন্দা নদীর পানি বিভিন্ন শাখা প্রশাখায় পানিশূন্য হলে চাষাবাদে কৃষকের অনেকটাই কষ্টসাধ্য ও পেরেসানিতে চাষাবাদে বিঘ্ন সৃষ্টি হয় এতে করে কৃষক বোরো মৌসুমে পাকা সোনালী ফসল বাঁচাতে অনেকেই মহানন্দা নদীর পাড়ে বসাই পানি উত্তলনীয় অগভীর স্যালো বোরিং মেশিন।এদিকে মহানন্দা নদীর তীরে থাকা ভারতের অসংখ্য জমি বোরো মৌসুমে মহানন্দা নদীর সেচে চাষাবাদ করা হয়।

তাছাড়া ভারতের মার্শাল বা অফদ্যা নামক পানি উত্তোলনীয় অগভীর নলকূপে পানি সঙ্কট অপরদিকে ধুধুময় মহানন্দা নদীর তলদেশ এতে করে চরম দুশ্চিন্তায় ভুগছিল মহানন্দা নদী কে ঘিরে ভারত বাংলার কৃষক।তবে অসময় নদীতে পানি ঢুকতে শুরু করায় কৃষকদের খুব একটা কাজে আসবে না তবুও কৃষকসহ পশুপাখি যেন পানি পেয়ে আনন্দে ভাসছে।

মহানন্দা নদীর পানি শূন্য শুকনো থাকায় নদীর তলদেশে কতশত প্রাণী পানি না পেয়ে শামুক মুক্ত ঝিনাই ও সাপ ব্যাঙ পশুপাখির মৃতদেহ চোখে পড়ে তবে বৈশাখ মাসে বাংলা ১৪২৮ বুধবার থেকে পূর্নভবা নদী থেকে মহানন্দা নদীতে পানি ঢুকতে শুরু করলে তা মহানন্দা নদীর শাখা ভারত-বাংলাদেশের কোল ঘেঁষে বয়ে যাওয়া নদীতে পানির দেখা পেয়ে পোখ পাখালি যেন মন মাতানো মিছিলে ভাসমান আনন্দের জোয়ারের কলকাকলি ডাক যেন শুনতে পাই।

এছাড়াও মাঠের রাখাল ও গরু মহিষ পিপাসু ছাগলদের আনন্দ যেন রামচন্দ্রপুর মৌজা বরতলা বিলের ভারত বাংলা সংলগ্ন মহানন্দা নদীর শাখায় পানি পেয়ে যেন উচ্ছ্বাসে ভাসছে সবাই।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: