ঢাকা সোমবার, ২৫শে জানুয়ারী ২০২১, ১২ই মাঘ ১৪২৭


মিষ্টিকে বিয়ে করার নেপথ্যের ‘করুণ’ গল্প


প্রকাশিত:
২৭ ডিসেম্বর ২০২০ ১৮:২৬

আপডেট:
২৫ জানুয়ারী ২০২১ ০৪:৩১

‘করুণ’ গল্প

বেশ কয়েকদিন ধরেই টম ইমাম ও মিষ্টি ইমাম নামের এক যুগলের বিবাহবার্ষিকীর ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল। স্বামীর বয়স স্ত্রীর থেকে অনেক বেশি হওয়ায় তাদের নিয়ে অনেকেই আলোচনা-সমালোচনা করছেন।

আসলে ‘ভালোবাসার কোনো বয়স নেই’—কথাটির অরেক উদাহরণ টম ইমাম ও মিষ্টি ইমাম। তাদের ভালোবাসা বয়সের ঘরে আটকে থাকেনি। দু’জনের বয়সের তফাৎ ‘আকাশ-পাতাল’ হলেও ভালোবাসা তাদের এক করেছে। তবে এর নেপথ্যে রয়েছে করুণ একটি গল্প।

টম ইমামের দ্বিতীয় স্ত্রী হচ্ছেন মিষ্টি ইমাম। এর আগে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আমেরিকান এই যুবক আরেকটি বিয়ে করেছিলেন। তার প্রথম স্ত্রী ছিলেন একজন আমেরিকান।

২০০১ সালে প্রথম বিয়ে করেন টম ইমাম। কিন্তু তার সেই স্ত্রী প্রায় ১০ বছর ধরে অসুস্থ ছিলেন। দীর্ঘদিন হাসপাতালে ভর্তি থাকার পর ২০১১ সালে মারা যান। প্রথম বিয়ের পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ২০ বছর সন্তানদের কথা চিন্তা করে বিয়ে করেননি টম। এমনকি স্ত্রীর শোক ও সন্তানের চিন্তায় টমও অসুস্থ হয়ে পড়েন।


তবে কার জীবনে কখন বসন্ত নেমে আসে, তা বলা মুশকিল! টমের জীবনেও মিষ্টি নামের সেই বসন্ত নেমে আসে ২০১৯ সালে। প্রথমে প্রেম, তারপর বিয়ে। চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে তাদের বিয়ের এক বছর পূর্ণ হয়।

সম্প্রতি টম ইমাম ও মিষ্টি ইমামের বিবাহবার্ষিকীর ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। স্বামীর বয়স স্ত্রীর থেকে অনেক বেশি হওয়ায় তাদের নিয়ে অনেকেই আলোচনা-সমালোচনা করছেন। এ নিয়ে তিনি বলেন, অনেক খারাপ মন্তব্যও করেছেন। এগুলো কি আপনাদের ঠিক হলো?


টম ইমাম ও স্ত্রীর মিষ্টি ইমাম দুজনই বাংলাদেশী নাগরিক। টম বাংলাদেশেই শিক্ষা জীবন শেষ করে আমেরিকা পাড়ি জমান। বর্তমানে তিনি সেখানকার নাগরিক এবং সেখানে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন।

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এই আমেরিকান এইচএসসি পাশ করেন পটুয়াখালী জুবেলী হাইস্কুল থেকে। ১৯৭৮-১৯৮২ শিক্ষাবর্ষে রাজধানীর শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় হতে গ্র্যাজুয়েশন শেষ করেন।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন: